কাঠের চিরুনি কেন ব্যবহার করবেন?

নাজমুল হোসেন, ইউকে থেকেঃ সাধারণত আমরা প্লাস্টিকের চিরুনি ব্যাবহার করি। কিন্তু প্লাস্টিকের চিরুনিতে থাকে বিভিন্ন ক্ষতিকারক উপাদান, যা চুলের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক। এবং তার ফলেই চুলের সমস্যা অনেক বেড়ে যায় ।

প্লাস্টিকের চিরুনি কেন ব্যবহার করবেন না ?

প্লাস্টিকের চিরুনি বা ব্রাশ চুলের গোঁড়াকে ইরেটেইট করে ফলে মাথার ত্বকে খুশকি হয়। প্লাস্টিকের চিরুনি দিয়ে আঁচড়াবার সময় মাথায় প্রচণ্ড তাপ উৎপন্ন করে। যেটি চুলের জন্য ক্ষতিকারক। অতিরিক্ত তাপ স্কাল্প সহ্য করতে পারে না এবং চুল পড়ে।

অনেকের স্কাল্পেই অ্যালার্জির সমস্যা হয়। প্লাস্টিকের ক্ষতিকর উপাদান থেকে এই সমস্যাটি হয়।

আর প্লাস্টিকের চিরুনি স্কাল্পে ঘর্ষণের ফলে তড়িৎ উৎপন্ন হয়, যাকে ইংরেজীতে স্ট্যাটিক ইলেক্ট্রিসিটি বলা হয়। তাই চুলকে একত্রে জড়িয়ে ফেলে, চুল পড়া বাড়িয়ে দেয়। তাই বিশেষ করে শীত কালে প্লাস্টিকের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ালে চুল খাড়া হয়ে যায়। এবং চুলের ময়লা চিরুনিতে লেগে থেকে আবার চুলের লেগে থাকে।

কাঠের চিরুনি কি কি করেঃ

১) মাথার ত্বকের রক্ত চলাচল বাড়ায়। এটি মাথার সমস্ত দিকে সমান ভাবে রক্ত সঞ্চালনকে ছড়িয়ে দেয়। কাঠের চিরুনি প্রয়োজনীয় তাপকে মাথার সমস্ত দিকে সমান ভাবে ছড়িয়ে দেয়।  চুল বাড়তেও সাহায্য করে।
২) SPA বিশেষজ্ঞদের মতে Wooden Hair Brush/ Comb, stress দূর করে রিলেক্সিং অনুভুতি দেয়। ক্লান্তি দূর করে মস্তিস্ককে সতেজ করে
৩)  চুলের সামগ্রিক গুনাগুন উন্নত করে, চুলের গোঁড়া শক্ত করে এবং বৃদ্ধিকে ত্বরান্বিত করে
৪) চুল পড়া ও চুল ভেঙ্গে যাওয়া রোধ করে। চুলের প্রাকৃতিক তৈলাক্ত ভাবকে সমস্ত চুলে সুন্দর ভাবে ছড়িয়ে দেয়। ফলে চুল তার প্রয়োজনীয় ময়েশ্চার পায়। তার ফলে চুল তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি পায়। চুল অতিরিক্ত শুকিয়ে যায় না। চুলকে একটা বাউন্সি লুক দেয়। এবং চুল ফেটে যাওয়া নিয়ন্ত্রন করে।
৫) স্বাস্থউজ্জ্বল চুল পেতে সাহায্য করে। কাঠের চিরুনির দাঁতগুলো গোলাকার ও মসৃণ থাকে বলে চুলের গোঁড়াকে মসৃণ, নরম ও শান্ত (Calm) রাখে। 
৬)  এর কাঠের দাঁতগুলো মাথার ত্বককে উদ্দিপ্ত ( stimulate ) করে এবং চুলের গোঁড়া থেকে যে প্রাকৃতিক তেল বের হয় তা চুলের গোঁড়া থেকে চুলের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত ছড়িয়ে দেয়।
৭) কাঠের চিরুনি তেলকে মাথার সমস্ত দিকে সুন্দর ভাবে ছড়িয়ে দেয়। যেটা স্কাল্প ময়েশচারাইজড্ করে। এর ফলে খুস্কি এবং মরা চামরা দূর করে। চূলের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা বাড়ায় ও চুলকে ঝলমলে করতে সাহায্য করে। ৮) প্রতিদিন নিয়মিত কিছুক্ষন চুল আঁচড়ালে মাথা ব্যথা কমায়, ইনসমনিয়া কমায় ঘুমাতে সাহায্য করে। 
৯) কোঁকড়ানো চুলের জন্য বিশেষ উপকারী ও যে কোন ধরনের দৈর্ঘের চুলের জন্য উপযোগী।

কি কি করে নাঃ

১) ঘর্ষণের ফলে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয় না বা কাঠের ভিতর দিয়ে বিদ্যুৎ প্রবাহিত ও হয় না

২) চুলে জট ধরায় না 

৩) খুস্কির মত সমস্যা গুলি হয় না

এসব কারনে প্রাচীনকালে কাঠের চিরুনি ব্যবহার করা হত। চুলের ও এত সমস্যাও ছিল না।

কিভাবে পরিস্কার করবেন??
কাঠের চিরুনি বা ব্রাশ পরিষ্কার করা বেশ সহজ। তেল বা পেটরোলিয়াম জেলি দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে, টিস্যু বা তুলা দিয়ে মুছলেই পরিস্কার হয়ে যায়। প্রতিমাসে কমপক্ষে ২ বার কাঠের চিরুনি বা ব্রাশ পরিষ্কার করে নিন।

কখনোই পানি দিয়ে পরিস্কার করা উচিত না।

নাজমুল হোসেন, হেলথ প্রফেসনাল, লন্ডন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here